ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 3 months ago

ডোনাল্ড ট্রাম্প বাজেটে জোরপূর্বক স্বাক্ষর দিয়েছেন যাতে তার প্রতিশ্রুত দেয়াল নির্মাণ বাবদ ১ সেন্টও বরাদ্দ নেই



মি. ট্রাম্প তার নিউজার্সির বাড়িতে মধ্যরাতে রুদ্ধদ্বার কক্ষে বাজেটে স্বাক্ষরের আ্দশ দেন।
ডোনাল্ড ট্রাম্প অর্থ বছরের অবশিষ্ট সময়ের ব্যয় সংকুলানের জন্য ১.১ ট্রিলিয়ন ডলার সম্বলিত বাজেটে স্বাক্ষর করেছেন। তাঁর নির্বাচনী প্রচারণার প্রধানতম প্রতিশ্রুতির মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের খাতে কোনো অর্থ বরাদ্দ এই বাজেটে নেই।
হোয়াইট হাউস মুখপাত্র সারাহ হাকাবী স্যান্ডার্স নিয়মিত মিডিয়া ব্রিফিংয়ে এই বাজেট স্বাক্ষরের সত্যতা স্বীকার করেন।
সরকারি কর্মকান্ড বন্ধের মুহূর্তে ট্রাম্প মধ্যরাতে তাঁর নিউজার্সির বাসভবনের রুদ্ধদ্বার কক্ষে এ বাজেট স্বাক্ষর করেন। কিন্ত  সরকারের খরচ নিয়ে জনমনে ঝড় বয়ে যায়। যার মধ্যে রয়েছে প্রতিশ্রুত সীমান্ত দেয়াল ও সামরিক বাহিনীর পুনর্গঠন।
বিলের নেগোসিয়েটরগণ ট্রাম্পের প্রতিশ্রুত ইউএস-মেক্সিকো সীমান্ত দেয়াল নির্মাণের জন্য এককালীন ন্যূনতম বরাদ্দ সংক্রান্ত দাবি এড়িয়ে যান। কিন্ত স্বাক্ষরের ফলে অর্থ বছরের অবশিষ্ট ৫ মাসের ব্যয় বরাদ্দ নিশ্চিত হয়েছে। যখন আইন প্রণেতাগণ দেয়াল নির্মাণ এবং জনগণের জন্য ব্যয় ও বৈদেশিক সাহায্য কমিয়ে সামরিক বাহিনী গড়ে তুলতে ব্যাপক ব্যয় বরাদ্দের বিষয়ে বিতর্ক করেন।
সংসদ বুধবার ব্যাপক দ্বিধা ভোটে বাজেট পাশ করে, যেখানে ১০৩ জন রক্ষণশীল রিপাবলিকান বিলটির বিরোধিতা করেন। হোয়াইট হাউস ও এটির জিওপি জোট ১৫ বিলিয়ন ডলার পেন্টাগনের অতিরিক্ত ব্যয় ও ট্রাম্পের সীমান্ত রক্ষা ফান্ডে ১.৫ বিলিয়ন ডলার ব্যয় বরাদ্দের প্রশংসা করেন কিন্ত সীমান্ত দেয়াল নির্মাণে অর্থ বরাদ্দে অস্বীকৃতি জ্ঞাপন করে।
সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ রিপাবলিকান নেতা ও প্রধান সমন্বয়ক মিচ ম্যাককোনেল বলেন, “দীর্ঘ শাসনের পরও সীমান্ত রক্ষা ব্যয় বৃদ্ধি করতে ব্যর্থ হলেও এই বাজেট এক দশকের মধ্যে সীমান্ত রক্ষা ব্যয় বৃদ্ধি করতে সমর্থ হয়েছে।”
ডেমোক্র্যাট ও ‘প্রোগ্রেসিভ’ রিপাবলিকানরা যারা সফল সমন্বয়ক তারা ট্রাম্পের বৈদেশিক সাহায্য, পরিবেশ সংরক্ষণ এজেন্সি, আর্ট খাতে ব্যয়, অর্থনৈতিক উন্নয়ন মঞ্জুরি ইত্যাদি খাতে অর্থ বরাদ্দের সমর্থন করেছেন।
১,৬৬৫ পৃষ্ঠার বিল ‘নাসা’র মেডিকেল গবেষণা, এফবিআই এবং অন্যান্য ফেডারেল আইন প্রয়োগের ক্ষেত্রে ব্যয় বৃদ্ধি করেছে।