ব্রেকিং নিউজঃ

এবার সু চির খেতাব ফিরিয়ে নিল ‘ডাবলিন সিটি কাউন্সিল’  ***  রোনালদো-বেলের গোলে ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ  ***  নেতাকর্মীদের নিয়ে বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে বেগম খালেদা জিয়ার শ্রদ্ধা  ***  ব্লগার নিলয় হত্যার প্রতিবেদন দাখিল ২৪ জানুয়ারি  ***  ঢাবির প্রশ্ন ফাঁসে রাবি ছাত্রসহ আটক ১০  ***  টেকনাফে রোহিঙ্গা শিবিরে অগ্নিকাণ্ডে স্কুলসহ ২৫ দোকান পুড়ে ছাই  ***  জেরুজালেমকে ট্রাম্পের স্বীকৃতি আন্তর্জাতিক আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন : আব্বাস  ***  ঘন কুয়াশায় শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ  ***  মিরপুর বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতির শ্রদ্ধা  ***  ট্রাম্পের ঘোষণা প্রত্যাখ্যান, জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিলো ওআইসি
Published: 3 months ago

ব্ল্যাকমেলিং করে ১৫০ বারের বেশি ধর্ষণ করা কে এই ক্রিকেটার ?



ক্রীড়া প্রতিবেদক :
ভারতীয় ধর্মগুরু রাম রহিমের অপকর্মের চাঞ্চল্যকর তথ্যে যখন গোটা বিশ্বে তোলপাড় চলছে ঠিক তখনই আরেক রাম রহিমের সন্ধান মেলেছে ইংল্যান্ডে।

তিনি রাম রহিমের মত ধর্মগুরু না হলেও তার চেয়েও কম নন অপকর্মে। ক্রিকেটের নতুন এ রাম রহিমের নাম ডিওন তালিজার্ড। যিনি এক সময় দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার ছিলেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তিনি নাকি ব্ল্যাকমেলিং করে এক ব্রিটেন নারীকে ১০ বছরে দেড়শো বারেরও বেশি ধর্ষণ করেছেন।

তার এমন কুকীর্তিতে গোটা ক্রিকেটবিশ্বই অবাক হয়েছে। আদালতের রায়ে তালিজার্ড দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। শুধু তাই নয়, আগামী ১৮ বছরের জন্য জেলই তার একমাত্র ঠিকানা হতে চলেছে।

যদিও ৪৭ বছর বয়সী তালিজার্ড আদালতের এ রায় মানতে নারাজ। নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে তিনি এখন উচ্চতর আদালতে আবেদন করতে যাচ্ছেন।

ব্রিটেনের সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে তালিজার্ডের অত্যাচারের ভয়ে ওই নারী তার গোপন কর্ম এতদিন ফাঁস করেননি। যখন সমস্ত সহ্যের বাঁধ ভেঙে যায় ঠিক তখনই তিনি পুলিশকে সমস্ত ঘটনা খুলে বলেছেন। তার পরেই সম্প্রতি ম্যানচেস্টারের মিনসুল স্ট্রিট ক্রাউন কোর্টে তিনি দোষী সাব্যস্ত হন।


তালিজার্ড ব্রিটেনের ওই নারীর উপরে ২০০২ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ দশ বছর ধরে ধর্ষণ করেছেন। এমন কী, সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, তালিজার্ড শুধুমাত্র যৌনক্রিয়াই নয়, শারীরিকভাবেও সংশ্লিষ্ট নারীকে অসংখ্য বার হেনস্থা করেছেন। ফলে ওই নারী ২০১৫ সালে আদালতের শরনাপন্ন হয়ে মামলা ঠুটে দেন।

উল্লেখ্য তালিজার্ড দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ১৭ বছর আগে ব্রিটেনেপাড়ি জমান। এর পর তিনি স্থানীয় ওল্ডহ্যাম, বোল্টন ও বুরির হয়ে ক্লাব ক্রিকেটে খেলতেন। তবে তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া ক্রিকেটে বর্ডারের হয়ে ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত খেলেছেন। তালিজার্ড অবশ্য পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একটি প্রদর্শনী ম্যাচে মোহম্মদ ইউসুফ, আজাহার মাহমুদ ও সাইদ আনোয়ারকে আউট করে হ্যাটট্রিকসহ হাফডজন উইকেট নিয়েছিলেন।

আদালত অভিযোগকারী সেই নারীর সাক্ষ্য নিলেও তার নাম প্রকাশ করেনি। মামলার বিবরণী থেকে ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড মেইল অনলাইন জানিয়েছে, তালিজার্ডের সঙ্গে ওই নারীর পরিচয় হয়েছিল স্থানীয় একটি ক্রিকেট ক্লাবে। সেই পরিচয় সূত্রেই নারীকে অভিসারে প্ররোচিত করে পরে জোর করে তার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী নিকোলাস ক্লার্ক বলেন, ওই নারীকে আসামী বেশির ভাগ সময়ই সোমবার ধর্ষণ করতেন। সূত্র: মেইল অনলাইন, মিরর, ম্যানচেস্টার ইভিনিং।
বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএ