ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 4 months ago

জেগে উঠেছে সালমান শাহ ভক্তরা !



বাংলা রিপোর্ট ডেস্ক:

‘সালমান শাহ’ যার নাম শুনলে কোটি হৃদয়ে বেজে ওঠে বেদনার করুণ সুর। চলচিত্রের তুমুল জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহর মৃত্যুরহস্য আবারো ‘টক অব দ্য টাউন’ হয়ে উঠেছে।

এদিকে গত সোমবার এ নায়কের হত্যা মামলার অন্যতম আসামি রুবি একটি ভিডিও প্রকাশ করার পর আলোচনা নতুন মোড় নেয়। সালমান হত্যাকাণ্ডের জন্য সালমানের শ্বশুর বাড়ির লোকজন ও নিজের স্বামীকেও দায়ী করেন রুবি। জানান, তিনিই সালমান হত্যার একমাত্র জীবিত সর্বশেষ প্রমাণ !

এদিকে সালমান শাহ হত্যার ভিডিও প্রকাশ হওয়ার পর পরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে সালমান হত্যার বিচার চেয়ে প্রতিবাদের তীব্র ঝড় লক্ষ করা যাচ্ছে।

জনগনের কয়েকটি মন্তব্য হুবুহু নিন্মে তুলে ধরা হলো:–

# সালমান শাহ হত্যা শেয়ার করে সমগ্র বিশ্বের মানুষকে জানিয়ে দিন, সালমান আত্নহত্যা করে নাই তাকে হত্যা করা হয়েছে। — রুবি (সামিরার মামি)

# সালমান শাহ হত্যায় খুনিদের বিচার চাই — nurulislam.motupi

# দয়া করে ইমনের খুনির বিচার করুন — Md Babu

# ৪৫ বছর পর যদি,,যুদ্ব অপরাধীদের বিচার করতে পারে সরকার,,তাহলে ২১ বছর পর সালমান হত্যার বিচার হবে না কেন? কোথায় এখন আমাদের সরকার,,কোথায় দেশের আইন? প্রবাসীদের পক্ষ থেকে আমি বিচার চাই। — Joy Ripon

# সালমান শাহ্‌র হত্যাকারীদের চাই মোরা ফাঁসি ! — bijoy probashi বিজয়
প্রবাসী

# এক দফা এক দাবী আমাদের। সালমান সাহ্ অকাল মৃত্যর হত্যার বিচার চাই। নইলে এদেশের সরকার দিয়া কি হবে। আমরা চাই সরাসরি প্রকশ্যে এদের রোডের মাঝে ফেলে ফাঁশি দেওয়া হউক। — SHEIKH PANNU ISLAM

# সালমান হত‍্যার বিচার চাই — Nargis Akter

# সালমান কেনো আত্মহত্যা করবে তার কিসের অভাব ছিলো …হত্যাকারীদের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত — Tohidur Rahman

এদিকে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সালমানের শ্বশুর সাবেক ক্রিকেটার শফিকুল হক হীরা জানান, রুবির বক্তব্য নিয়ে মোটেও মাথা ঘামাচ্ছেন না। রুবিকে তিনি উম্মাদ আখ্যা দেন। পাশাপাশি বলেন, সালমানের মা নীলা চৌধুরী টাকা দিয়েছেন রুবিকে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে রুবি মঙ্গলবার এক স্ট্যাটাসে হীরার উদ্দেশে কয়েকটি প্রশ্ন করেছেন। তিনি বলেন, ‘সামিরার (সালমানের স্ত্রী) পরিবারকে বলো আমি শরীর ও মনের দিক থেকে অনেক ভালো আছি। তারা কীভাবে প্রমাণ করবে যে আমি মানসিকভাবে অসুস্থ? সামিরার বাবা শফিকুল হক হীরা কী করে আমার সমন্ধে এত কিছু জানে?’

আরো লেখেন, ‘আমি তো উনাকে দেখিনি ১৯৯৭ সালের পরে। আমাকে নিয়ে এত খবর তিনি কী করে জানেন? কার কাছ থেকে তিনি এত খবর পান। মাথা খারাপ মানুষ নিউইয়র্কে হোটেল ভাড়া নিতে পারে না। আমি হোটেলে তিনদিন ধরে আছি। একা। একমাত্র আল্লাহ তায়ালার ওপর ভরসা করে।’

রুবি জানান, সালমানের মায়ের সঙ্গে ১৯৯৫ সালের পর দেখা হয়নি। তার নিজের যথেষ্ট টাকা আছে।

আরো প্রশ্ন তোলেন, সালমানের মৃত্যুর দিন তার ছেলে ভিকিকে নিয়ে কিছু একটা সরিয়ে ছিলেন সামিরা। সেটা কী? কাজের লোকের কাছে কীভাবে সালমানের সুইসাইড নোট এল।

সালমান হত্যা মামলার ১১ জন আসামির মধ্যে অন্যতম রুবির পুরো নাম রাবেয়া সুলতানা রুবি। যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়ার ফিলাডেলফিয়াতে চাইনিজ স্বামী ও দুই সন্তানসহ অনেকদিন ধরে বসবাস করছিলেন তিনি।

সাধারন জনগনের একটাই দাবি সালমান শাহ হত্যার বিচার চাই। সালমান শাহ হত্যাকারীদের সঠিক তদন্তের মাধ্যমে বিচার হউক এটাই সবার প্রত্যাশা।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএম