ব্রেকিং নিউজঃ

আইন সচিবের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ স্থগিত  ***  পাবনায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত, আহত ১৫  ***  অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি  ***  নায়করাজের জানাযা হবে একবারই  ***  নায়করাজের মরদেহ আজ নেওয়া হবে শহীদ মিনারে  ***  রাজধানীতে তিন ঘণ্টায় ৫৪ মিলিমিটার বৃষ্টি  ***  পাবনায় দুই বাসের সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত  ***  সাত খুন মামলা: হাইকোর্টের রায় পড়া শুরু  ***  বাংলা চলচ্ছি্ত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাকের প্রতি সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মঙ্গলবার বেলা ১২ টায় তার মরদেহ কেন্দীয় শহীদ মিনারে রাখা হবে :সকালে এফডিসিতে মরদেহ নেওয়া হতে পারে,বাদ জোহর গুলশান আজাদ মসজিদে নামাজে জানাজা, দাফন বনানী কবরস্থানে।  ***  নায়করাজ রাজ্জাকের জানাজা মঙ্গলবার বাদ জোহর
Published: 2 weeks ago

গুয়ামে ক্ষেপণাস্ত্র ছাড়বে উ. কোরিয়া আগস্টের মাঝামাঝি



বাংলা রিপোর্ট ডেস্ক:

উত্তর কোরিয়া ঘোষণা করেছে, আগস্টের মাঝামাঝি সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের গুয়ামে চারটি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাতে প্রস্তুত উত্তর কোরিয়া। গুয়ামে পরমাণু বোমা বহনে সক্ষম মার্কিন কৌশলগত বিমানঘাঁটিসহ হাজার হাজার মার্কিন সেনা রয়েছে।

 

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রপারিচালিত সংবাদমাধ্যম কেসিএনএ এর বরাত দিয়ে বিবিসি ও সিএনএন এই খবার জানায়।

 

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমে কেসিএনএ জানিয়েছে, দেশটির নেতা কিম জং-উনের কাছে পরিকল্পনা উত্থাপন করা হবে। মার্কিন ভূখণ্ডে হামলার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত তিনিই নিবেন বলেও খবরে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

কোরিয় গণমুক্তি ফৌজ বা কেপিএর কমান্ডার জেনারেল কিম রাক-গিওমের বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে যে পিয়ংইয়ংয়ের হাওসং-১২ আন্তমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র জাপানের হিরোশিমার ওপর দিয়ে যেয়ে গুয়ামে আঘাত করবে। এটি ১০৬৫ সেকেন্ডের মধ্যে ৩৩৫৬.৭ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে গুয়ামে আঘাত হানবে বলেও জানান তিনি।

 

তিনি আরো বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তিজ্ঞান হারিয়ে ফেলেছেন এবং প্রচণ্ড বলপ্রয়োগই কেবলমাত্র তার ওপর কাজ করবে। উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে জোরালো বল প্রয়োগের যে হুমকি ট্রাম্প দিয়েছেন তা নিয়েও কথা বলেন তিনি। ট্রাম্পের এ হুমকিকে ‘অর্থহীন প্রলাপ’ বলে মন্তব্য করেন জেনারেল কিম রাক-গিওম।

 

বিবিসি জানায় জাপানের আকাশের ওপর দিয়ে খুব শিগগিরই উত্তর কোরিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের গুয়ামে চারটি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাতে প্রস্তুতি নিয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার স্ট্র্যাটেজিক রকেট ফোর্সেস এর প্রধান লে. জেনারেল কিম রক-জিওম এক বিবৃতিতে বলেন, ক্ষেপণাস্ত্র ও পারমাণবিক ইস্যুতে পিয়ংইয়ংকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হুমকির জবাবে মার্কিন অঞ্চল গুয়ামের কাছে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চলাতে ‘গুরুতরভাবে পরীক্ষা পরিকল্পনা’ করছে উত্তর কোরিয়া।

বিবৃতিতে বলা হয়, কোরিয়ান পিপলস আর্মির (কেডিএ) নর্থ কোরিয়ান স্ট্র্যাটিজিক্যাল ফোর্স গুয়ামকে লক্ষ্য করে ওয়াসং-১২ (Hwasong-12) নামে মাঝারি মাত্রার চারটি কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্র রকেট নিক্ষেপ করবে।

 

গেলো মাসে পিয়ংইয়ং ওয়াসং ১৪ (Hwasong-14) নামে ইন্টারকন্টিনেন্টাল ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে। যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাণকেন্দ্রে আঘাত হানতে সক্ষম বলে দাবি করে উ. কোরিয়া।

 

ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন অবরোধ অনুমোদন দেয় জাতিসংঘ। এই অবরোধকে পিয়ংইয়ং তার দেশের সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন বলে অভিহিত করে। অবরোধ আরোপের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী করে সমুচিত জবাব দেয়ারও ঘোষণা দেয় দেশটি।

 

এর পরপরই গেলো মঙ্গলবার উত্তর কোরিয়াকে কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রকে ফের হামলার হুমকি দিলে উত্তর কোরিয়াকে আগ্রাসী জবাব দেয়া হবে। পিয়ংইয়ংকে এমন জবাব দেয়া হবে, যা আগে কখনো দেখেনি বিশ্ব। জবাবে পিয়ংইয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই হুমকির নিন্দা জানায়।

 

যুক্তরাষ্ট্রের ওপর যেকোনো হুমকির আগ্রাসী জবাব দেওয়া হবে বলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মন্তব্যের কয়েক ঘণ্টা পর স্থানীয় সময় বুধবার উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে এমন হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

 

গুয়ামে যুক্তরাষ্ট্রের একটি সামরিক ঘাঁটি আছে। অঞ্চলটিতে হামলার পরিকল্পনার বিষয়টি ‘সতর্কভাবে পরীক্ষা করা হচ্ছে’ বলে উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

 

দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএতে প্রকাশিত উত্তর কোরিয়ার পিপল’স আর্মির এক মুখপাত্রের বিবৃতিতে বলা হয়, দেশটির সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন সিদ্ধান্ত নেওয়ামাত্রই হামলার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে।

 

আরেক সামরিক মুখপাত্রের বিবৃতিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র ‘আত্মরক্ষার্থে যুদ্ধের’ পরিকল্পনা করছে। এমন কোনো পরিকল্পনা বাস্তবায়নের চেষ্টা করা হলে দেশটির মূল ভূখণ্ডসহ শত্রুদের সব ঘাঁটি তছনছ করে দেওয়া হবে।

 

গত ৪ ও ২৮ জুলাই দুটি আইসিবিএমের পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশটির বিরুদ্ধে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে একটি নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাব উত্থাপন করে যুক্তরাষ্ট্র। শনিবার সেই প্রস্তাব সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয়।

জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞায় উত্তর কোরিয়ার রপ্তানি বাণিজ্যের রাশ টেনে ধরা হয়েছে। এই নিষেধাজ্ঞার ফলে উত্তর কোরিয়ার ৩০০ কোটি ডলার রপ্তানির মধ্যে ১০০ কোটি কমে যেতে পারে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

নিষেধাজ্ঞার পর সোমবার এক অনুষ্ঠানে উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি ইয়ং হো কোরীয় উপদ্বীপের বর্তমান অবস্থার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী করেন। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের পরমাণু অস্ত্রের হুমকি মোকাবিলায় আইসিবিএম পরীক্ষা একটি বৈধ পদক্ষেপ।

 

উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, ‘কোনো অবস্থাতেই আমরা পরমাণু অস্ত্র ও ব্যালিস্টিক রকেটের বিষয়টি আলোচনার টেবিলে আনব না।’

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এইচএম