ব্রেকিং নিউজঃ

হারের বৃত্তেই নাসিরের দল, রানে ফিরলেন গেইল, অবশেষে জয় মাশরাফির  ***  কুমিল্লাকে জেতালেন পাকিস্তানের হাসান আলী ও শোয়েব মালিক  ***  অবশেষে ড্র হলো শ্রীলঙ্কা-ভারত ১ম টেস্ট  ***  রাষ্ট্রদ্রোহী মামলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।  ***  খ্যাতিমান সঙ্গিতশিল্পী বারী সিদ্দিকীর শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন।  ***  বিপিএলঃ ঢাকা ডাইনামাইটসকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স: অপর ম্যাচ সিলেট সিক্সার্সকে ৭ রানে হারিয়েছে রংপুর রাইডার্স।  ***  বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরোদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠণের শুনানি ১১ ডিসেম্বর।  ***  উল্টো পথে গাড়ী চালানো এবং অবৈধ পার্কিং করলে সর্বোচ্চ পাচঁ হাজার টাকা জরিমানা  ***  ৭ মার্চকে কেন জাতীয় দিবস ঘোষণা নয়, জানতে হাইকোর্টের রুল।  ***  আবারও ভুল না করে বিএনপি নির্বাচনে আসুক, চায় সরকার: ওবাইদুল
Published: 6 months ago

যুক্তরাষ্ট্র সৌদি আরবের সঙ্গে ১০০ বিলিয়ন ডলারের অস্ত্র বিক্রির চুক্তি স্বাক্ষর করতে যাচ্ছে



আগামি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের সৌদি আরব সফরকালীন ১০০ বিলিয়ন ডলারের অস্ত্র চুক্তি স্বাক্ষরিত হতে যাচ্ছে।

শুক্রবার হোয়াইট হাউসের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা বলেন, আগামি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের রিয়াদ সফরকালে সৌদি আরবের সঙ্গে ১০০ বিলিয়ন ডলারের বিভিন্ন অস্ত্র বিক্রয় চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে।

এক কর্মকর্তা রয়টার্সের সঙ্গে শর্তসাপেক্ষে বলেন যে, এই চুক্তি দশকব্যাপী সৌদি আরবের সামরিক শক্তি শক্তিশালীকরণের লক্ষে স্বাক্ষরিত হতে যাচ্ছে। ৩০০ বিলিয়ন ডলারের চুক্তির মাধ্যমে সৌদি আরব যুক্তরাষ্ট্রের নিকট থেকে বিভিন্ন সামরিক অস্ত্র ক্রয় করবে। যুক্তরাষ্ট্র এখনও ইসরাইলের সামরিক শক্তি, এটির প্রতিবেশির রাষ্ট্রের তুলনায় গুণগতমান বৃদ্ধির জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

কর্মকর্তা বলেন, “আমরা চুক্তির চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছি।” মি. ট্রাম্পের সৌদি আরব সফর উপলক্ষে এই চুক্তিমালা প্রস্তুত করা হয়েছে। ট্রাম্প সৌদি আরবের উদ্দেশে রওনা করবেন ১৯ মে।

গত সপ্তাহে রয়টার্স প্রতিবেদন প্রকাশ করে যে, যুক্তরাষ্ট্র সৌদিকে দশ বিলিয়ন ডলার অস্ত্র ক্রয় চুক্তি চাপিয়ে দিচ্ছে এবং অবশিষ্ট চুক্তি ট্রাম্পের সৌদি সফর উপলক্ষে পাইপ লাইনে আছে। যুক্তরাষ্ট্র সৌদি আরবের এফ-১৫ জঙ্গি বিমান চালনা ও নিয়ন্ত্রণসহ অন্যান্য অস্ত্রের প্রধান সরবরাহকারী। মি. ট্রাম্প ম্যানুফ্যাকচারিং চাকরি বৃদ্ধির মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি চাঙ্গা করার মত প্রকাশ করেছেন।

কর্মকর্তা বলেন, “এটি আমেরিকার অর্থনীতির জন্য ভালো হলেও আঞ্চলিক চ্যালেঞ্জ মোকবিলায় সামর্থ বৃদ্ধির ক্ষেত্রেও এটি সহায়ক। ইসরাইল যদিও এখনও শক্তির ভারসাম্য রক্ষার প্রতিযোগিতায় লিপ্ত।

কর্মকর্তার বরাতে বলা হয়, ‘ট্রাম্প রিয়াদে তিনটি প্রধান মিটিং-এ মিলিত হবেন। সৌদি কর্মকর্তাদের সঙ্গে ধারাবাহিক মিটিং, ৬ জাতীয় উপসাগরীয় কো-অপারেশন কাউন্সিল এবং আরব ও মুসলিম নেতৃবৃন্দের সঙ্গে একটি নৈশভোজ। উক্ত নৈশভোজে চরমপন্থা ও অবৈধ অর্থপাচার রোধে আলোচনার জন্য ৫৬ জাতি ওআইসি নেতৃবৃন্দকে আমন্ত্রণ করা হয়েছে।

অফিসিয়াল সূত্রে জানা গেছে, মি. ট্রাম্প আলোচনা করবেন কীভাবে ইসলামী রাষ্ট্রগুলোর চরমপন্থা মোকাবেলা করা যায়, ইয়েমেনের যুদ্ধের অবসান ঘটানো যায়, তিনি আরও আলোচনা করবেন ব্যালিস্টিক মিসাইল’র হুমকি মোকাবিলা ও রেড সী-তে জাহাজ চলাচল নির্বিঘ্ন করার উপায় খুঁজে বের করার।

ইউএস নৌবাহিনীর কমান্ডার হরমুজ প্রণালী দিয়ে যুদ্ধজাহাজ অতিক্রমের সময় হয়রানি করার জন্য ইরানকে দোষারোপ করেছেন। উপসাগরীয় নেতারা ট্রাম্পের ক্ষেত্রে আশাবাদী কারণ তাদের প্রতিকূল ইরানের ক্ষেত্রে তারা ট্রাম্পকে বিরূপ দেখতে চায়।

ভূ-মধ্যসাগরীয় নেতাদের সঙ্গে প্রধান আলোচ্য বিষয় হবে ‘সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ’। সিরিয়া শরণার্থী আশ্রয়ের জন্য একটি নিরাপদ এলাকা গড়ে তোলা হবে এ আলোচনার উদ্দেশ্য।

সৌদি আরব সফরের পাশাপাশি ট্রাম্পের অন্য আন্তর্জাতিক সফরের মধ্যে আছে ইসরাইল, ভিয়েতনাম সফর। আরও আছে ‘ন্যাটো’ শীর্ষ সম্মেলনে যোগদানের জন্য ব্রাসেলস ও ৭-জাতি অর্থনৈতিক সম্মেলনের জন্য ‘সিসিলি’ সফরের কথা রয়েছে।

রেজা আফসারী

দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট ইউকে অবলম্বনে