ব্রেকিং নিউজঃ

বঙ্গোপসাগরে বছরের সর্বোচ্চ জোয়ার, উচ্চতা সাড়ে ১০ ফুট  ***  নয়া অ্যাকশনে মোস্তাফিজ  ***  অস্ত্রবিরতি সত্ত্বেও সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত শহরে হামলা, নিহত ৮  ***  আগামিকাল বুধবার থেকে পবিত্র জিলক্বদ মাস গণনা শুরু  ***  পাকিস্তানকে অত্যাধুনিক হেলিকপ্টার দিলো রাশিয়া  ***  ভারতের ১৪তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে আজ শপথ নিচ্ছেন রামনাথ কোবিন্দ  ***  কক্সবাজারে প্রবল বর্ষণে পাহাড় ধস : নিহত ৪, আহত ৫ জন  ***  সারাদেশে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের তথ্য সংগ্রহ শুরু, চলবে ৯ আগস্ট পর্যন্ত  ***  ভারতের গুজরাটে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, সরিয়ে নেয়া হয়েছে ২৫ হাজার মানুষকে  ***  ঢাকায় জেলা প্রশাসক সম্মেলন শুরু হচ্ছে আজ
Published: 1 week ago

আফগান সীমান্তে পাকিস্তানের সেনা অভিযান



বাংলা রিপোর্ট ডেস্ক:

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, আফগান সীমান্তবর্তী উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকায় তারা বিশেষ অভিযান শুরু করেছে। ইসলামিক স্টেট অর্থাৎ আইএস দমনেই তাদের এই সাড়াশি অভিযান চলছে বলে সোমবার সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন।
দেশটির সেনা মুখপাত্র জানিয়েছে, আফগান অভ্যন্তরে আইএস-এর এই অংশটি ক্রমশই পাকিস্তানের জন্যে হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছিল। যদিও এতদিন আইএস-এর অস্তিত্ব অস্বীকার করে আসছিল পাকিস্তান।
পাকিস্তান বলছে, আফগানিস্তানের ভেতরে থেকে শক্তিশালী হয়ে ওঠা জঙ্গিগোষ্ঠির প্রভাব ঠেকানোর জন্যেই প্রতিবেশী দেশটির উত্তর-পশ্চিম সীমান্ত এলাকায় ‘খাইবার-ফোর’ শিরোনামে এই অভিযান।

পাকিস্তানের সেনা মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট জেনারেল আসিফ গফুর এই সেনা অভিযানকে পাকিস্তানের জন্যে অত্যন্ত জরুরি উল্লেখ করে বলেন, গত কয়েক মাসে আইএস গোষ্ঠী খাইবার সীমান্তে বেড়ে উঠছিল।


সীমান্তের যে অংশে বিমান বাহিনীর সহায়তায় এই অভিযান পরিচালিত হয়েছে সেটি বেশকিছু উপজাতি গোষ্ঠী অধ্যুষিত এলাকা।

জেনারেল আসিফ গফুর জানিয়েছেন, আইএস’এর এই অংশ পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের সাবেক তালেবান গোষ্ঠীর সদস্যদের নিয়ে গঠিত। তারা মধ্যপ্রাচ্যের আইএস গোষ্ঠীর কেউ নয় বলেই দাবি করেন তিনি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, শুরুতে নিজ ভূখণ্ডে আইএসের অবস্থানের ব্যাপারে অস্বীকার করেছিল পাকিস্তান সরকার। কিন্তু গত দু’বছরে পাকিস্তানে বেশ কিছু হামলার দাবি করে আইএস। ক্রমেই বিস্তারলাভ করা সংগঠনটির ব্যাপারে আফগানিস্তান কিন্তু আগে থেকেই ইসলামাবাদকে সাবধান করে আসছিল।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এইচএম