ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 4 months ago

১৮ ঘণ্টা সিম বিক্রি বন্ধ থাকবে



বাংলা রিপোর্ট ডেস্ক:

সেন্ট্রাল বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন মনিটরিং সিস্টেম আপডেট করার জন্য বৃহস্পতিবার রাত ৮টা থেকে পরবর্তী ১৮ ঘণ্টা নতুন সিম বিক্রি বন্ধ থাকবে। সিস্টেম আপডেটের পর আবারো সব অপারেটরের সিম যথারীতি বিক্রি হবে।

 

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) সূত্রে জানা যায়, নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আপডেট হয়ে গেলে শুক্রবার বিকেল থেকে সিম বিক্রিতে আর কোনো সমস্যা থাকবে না। এ ছাড়া ১৮ ঘণ্টার মধ্যে যে মুহূর্তে যে অপারেটর আপডেট হয়ে যাবে এ সময়ের আগেই ওই অপারেটর সিম বিক্রি করার অনুমোদন পাবে। এটি পরিচালনা করবে বিটিআরসি।

 

এ বিষয়ে বুধবার ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম সচিবালয়ে ‘সেন্ট্রাল বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন মনিটরিং প্লাটফর্ম’ এর অনুষ্ঠানে বলেন, ‘সব মোবাইলফোন অপারেটরের বায়োমেট্রিক সিম নিবন্ধনের তথ্য এই তথ্যভাণ্ডারে সংরক্ষিত থাকবে। ব্যবস্থাটি চালু করতে বৃহস্পতিবার থেকে সিম বিক্রিতে কিছুটা সমস্যা হতে পারে। একটি জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সর্বোচ্চ ২০টি সিম নিবন্ধন করা যাবে। ২০টির বেশি সিম থাকলে বিটিআরসি সেসব সিম বন্ধ করে দেবে।’

 

এই প্ল্যাটফর্মের কাজ সম্পর্কে প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, ‘বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে যেকোনো অপারেটরের সিম কিনতে চাইলে অপারেটরদের সেই তথ্য যাবে বিটিআরসির সেন্ট্রাল মনিটরিং সিস্টেমে। সিস্টেম এনআইডির সঙ্গে যাচাই করে দেখবে গ্রাহকের এনআইডির বিপরীতে কয়টি সিম রয়েছে।

 

তারানা হালিম আরো বলেন,  নিয়ম অনুযায়ী সব অপারেটর মিলিয়ে একজন গ্রাহক ২০টির বেশি সিম রাখতে পারবেন না। সব ঠিক থাকলে বিটিআরসি জানিয়ে দেবে, সিম নিবন্ধন করা যাবে কি না। অপারেটর তথ্য প্রাপ্তি সাপেক্ষে সিমটি ভেরিফাই ও নিবন্ধন করবে। এ প্রক্রিয়ায় মোবাইল গ্রাহক সংখ্যা নিয়ে পরিসংখ্যান দেওয়া সহজ হবে। কোনো ডেটা নিয়ে সন্দেহ হলে বিটিআরসি তা যাচাই করে নিতে পারবে। গ্রাহকদের কোনো ধরনের হয়রানিতে না ফেলেই এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী।

 

২০১৫ নভেম্বর থেকে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন শুরু হওয়ার পর অপারেটররা গ্রাহকের এনআইডি যাচাই করে সিম নিবন্ধন করে আসছিল। শুক্রবার থেকে এ প্ল্যাটফর্ম চালু হলে নতুন সিম নিবন্ধনের বিষয়টি বিটিআরসির সম্মতির ওপর নির্ভর করবে।

 

গত ৩০ মে পর্যন্ত বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত সিমের ডাটাবেইজ আপডেট করা হয়েছে এবং নতুন প্ল্যাটফর্ম চালুর জন্য বৃহস্পতিবার থেকে চূড়ান্ত আপডেট করার সময় সিম বিক্রির ক্ষেত্রে বায়োমেট্রিক নিবন্ধন প্রক্রিয়ায় কিছুটা বিঘ্ন ঘটতে পারে বলে তারানা হালিম জানান।

 

বিটিআরসির তথ্য অনুযায়ী, গত ৩০ মে পর্যন্ত সব অপারেটর মিলিয়ে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত সিমের সংখ্যা ১৩ কোটি ৩১ লাখ ছাড়িয়েছে।

 

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এইচএম