ব্রেকিং নিউজঃ

আইন সচিবের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ স্থগিত  ***  পাবনায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত, আহত ১৫  ***  অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি  ***  নায়করাজের জানাযা হবে একবারই  ***  নায়করাজের মরদেহ আজ নেওয়া হবে শহীদ মিনারে  ***  রাজধানীতে তিন ঘণ্টায় ৫৪ মিলিমিটার বৃষ্টি  ***  পাবনায় দুই বাসের সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত  ***  সাত খুন মামলা: হাইকোর্টের রায় পড়া শুরু  ***  বাংলা চলচ্ছি্ত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাকের প্রতি সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মঙ্গলবার বেলা ১২ টায় তার মরদেহ কেন্দীয় শহীদ মিনারে রাখা হবে :সকালে এফডিসিতে মরদেহ নেওয়া হতে পারে,বাদ জোহর গুলশান আজাদ মসজিদে নামাজে জানাজা, দাফন বনানী কবরস্থানে।  ***  নায়করাজ রাজ্জাকের জানাজা মঙ্গলবার বাদ জোহর
Published: 2 weeks ago

এত স্বর্ণ আনে কারা, যায় কোথায়?



বাংলা রিপোর্ট ডেস্ক:

ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আট ঘণ্টার ব্যবধানে ৩১ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করেছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। শনিবার রাতে প্রথম দফায় সিঙ্গাপুর থেকে আগত জামিল আক্তার (৪৮) নামে এক যাত্রীর দেহ তল্লাশি করে ২৫ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করেন কাস্টমস হাউসের প্রিভেনটিভ টিমের সদস্যরা। সেই সাথে জামিল আক্তারকেও আটক করা হয়েছে।

ঢাকা কাস্টমস হাউসের সহকারী কমিশনার আহসানুল কবীর জানান, সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের এসকিউ ৪৪৬ ফ্লাইটে শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে শাহজালাল বিমানবন্দরে নামেন জামিল। প্রথমে তার গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে তার দেহ তল্লাশি করে শরীরের নিম্নাঙ্গে বন্ধনীর মধ্যে লুকানো অবস্থায় ২৫০টি স্বর্ণের বার পাওয়া যায়।

তিনি জানান, উদ্ধার স্বর্ণের বারগুলোর মোট ওজন ২৫ কেজি এবং দাম সাড়ে ১২ কোটি টাকা।

স্বর্ণ পাওয়ার পর জামিলকে বিমানবন্দর থানায় সোপর্দ করে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান ঢাকা কাস্টমস হাউসের এই কর্মকর্তা।

এরপর মাত্র ৮ ঘণ্টার ব্যবধানে রোববার সকালে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আবারও স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়েছে।এসময় ৬ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার হয়েছে বলে জানায় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, ইউএস বাংলা এয়ার-এর বিএস-৩১৪ নম্বর ফ্লাইটের টয়লেট থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ১ কেজি ওজনের ৬টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়। এর মূল্য ৩ কোটি টাকা।

দুইবারে মোট ৩১ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়। যার বাজার মূল্য সাড়ে ১৫ কোটি টাকা।

প্রায়ই বিমানবন্দরে বিপুল পরিমাণ স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়। এই উদ্ধার পর্যন্তই! এরপর আটককৃত স্বর্ণের খবর আর সাধারণ মানুষের জানার সৌভাগ্য হয় না। জনমনে প্রশ্ন- এত স্বর্ণ আনছেই কারা? বা এই স্বর্ণগুলো যাচ্ছেই বা কোথায়?

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএকে