ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 6 months ago

ঢাকা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া উৎসব শুক্রবার শুরু



ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় ও ঢাকা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া সংস্থার ব্যবস্থাপনায় ১৯ মে শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ‘ওয়ালটন ঢাকা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া উৎসব-২০১৭’। ধানমন্ডির সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে দুইদিনব্যাপী এই প্রতিযোগিতা চলবে ২০ মে পর্যন্ত।

বুধবার বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে উৎসবের নানাদিক তুলে ধরেন ঢাকা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদিকা কামরুন নাহার হিরু। ওয়ালটন গ্রুপের অপারেটিভ ডিরেক্টর (হেড অব) স্পোর্টস এন্ড ওয়েলফেয়ার এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), কোষাধ্যক্ষ হামিদা বেগম ও প্রবীণ ক্রীড়া সংগঠক ও ঢাকা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য ফরিদা আক্তার বেগমসহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় এবারের ক্রীড়া উৎসবে ঢাকার চারটি জোনের (ময়মনসিংহ, জামালপুর, ফরিদপুর ও ঢাকা) প্রায় দুই শতাধিক প্রতিযোগি অংশ নেবেন। ধানমন্ডির সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে অ্যাথলেটিকস, ভলিবল, হ্যান্ডবল ও কাবাডি- এই চারটি ডিসিপ্লিনে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। ১৯ মে প্রতিযোগিতার প্রথম দিনে অনুষ্ঠিত হবে কাবাডি ও হ্যান্ডবল। আর ২০ মে দ্বিতীয় দিন অনুষ্ঠিত হবে কাবাডি ও ভলিবল। অ্যাথলেটিকসে ৯টি ইভেন্ট রয়েছে।

এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার বলেন, ‘এর আগেও আমরা ঢাকা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছিলাম। এবার তৃতীয়বারের মতো তাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছি। আসলে বিভাগীয় এই ধরনের টুর্নামেন্ট থেকে ভালো ভালো খেলোয়াড় তৈরি করা সম্ভব। কারণ, জেলা পর্যায়ে ভালো করে জোনাল পর্যায়ে খেলতে হয়। আর সেখানে যারা ভালো করে তারাই বিভাগীয় পর্যায়ে খেলার সুযোগ পায়। বিভাগীয় পর্যায়ে ভালো করার মাধ্যমে জাতীয় ও বিভিন্ন সার্ভিসেস টিমে সুযোগ পায়। আমরা ওয়ালটন পরিবার চাই এই ধরনের প্রতিযোগিতা নিয়মিত অনুষ্ঠিত হোক। যাতে করে বাংলাদেশে নারী ক্রীড়াবিদদের অংশগ্রহণ বাড়ে। পাশাপাশি ভালো পারফরম্যান্স করার মাধ্যমে বিভিন্ন করপোরেট হাউস ও সার্ভিসেসে দলে সুযোগ পাক। প্রতিযোগিতার বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে হোম অ্যাপ্লায়েন্স দিয়ে উৎসাহিত করা হবে। আমি এই আয়োজনের সর্বাঙ্গিন সাফল্য কামনা করছি।’

ঢাকা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদিকা কামরুন নাহার হিরু বলেন, ‘এর আগেও আমরা ক্রীড়া উৎসবের আয়োজন করেছি। অন্যান্যবারের মতো এবারও ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতা পেয়েছি আমরা। এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত আনন্দের। এবারের এই ক্রীড়া উৎসবে ঢাকা বিভাগের চারটি জোনের প্রায় দুই শতাধিক প্রতিদ্বন্দ্বী অংশ নিবে। দুই দিনে চারটি ডিসিপ্লিনে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

 

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএকে