ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 5 months ago

প্রস্তুতি ম্যাচে বিশাল জয় বাংলাদেশের



স্পোর্টস ডেস্ক

প্রস্তুতি ম্যাচে আয়ারল্যান্ড উলভসের বিরুদ্ধে ১৯৯ রানের বিশাল জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের দেয়া ৩৯৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৪১.২ ওভারে ১৯৫ রানে অলআউট হয়েছে দলটি।

এর আগে তামিম-সাব্বিরের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩৯৪ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ। ৫০ ওভারের যেকোনো পর্যায়ের ক্রিকেটে এটাই সম্ভবত বাংলাদেশের সর্বোচ্চ স্কোর।

দৃষ্টিনন্দন সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন সাব্বির রহমান। ৮৬ বলে ১৬ বাউন্ডারি আর ১ ছক্কায় সেঞ্চুরি পূরণ করার পর তাকে দেয়া হয় বিশ্রাম। বাকিরাও সুযোগ পেলেন ব্যাট হাতে উইকেটে এসে ঝড় তোলার। ৮৬ রান করেন তামিম ইকবাল।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ঝড় তোলেন তামিম ইকবাল। ৭৪ বলে ৮৬ রান করে তিনি আউট হন তিনি। এরপর মাঠে নেমে ঝড় তোলেন সাব্বির রহমান। আইরিশ বোলারদের একের পর এক বাউন্ডারির বাইরে পাঠিয়ে বাংলাদেশের রানকে নিয়ে যান ধরাছোঁয়ার বাইরে।

৪৯ বলেই হাফ সেঞ্চুরির মাইলফলক স্পর্শ করেন সাব্বির। ৭টি বাউন্ডারি এবং এক ছক্কায় এই ম্যাজিক্যাল ফিগারে পৌঁছান তিনি। এ সময় বাংলাদেশের রান ছিল ২৮ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১৮০।

হাফ সেঞ্চুরির পরও সাব্বির ম্যাজিক চলতে থাকে। শেষ পর্যন্ত ৮৬ বলে সেঞ্চুরি পূরণ করে ছাড়েন এই টপ অর্ডার। তার ইনিংস সাজানো ছিল ১৬টি বাউন্ডারি এবং ১টি ছক্কায়।

যদিও দলীয় ৪৪ রানে ব্যক্তিগত ১৭ রান করে আউট হয়ে যান সৌম্য। তামিম আর সাব্বির মিলে বড় জুটি গড়ে তোলেন। ১০৩ রানের জুটি গড়ার পর ৭৫ বলে ৮৭ রান করে আউট হন তামিম ইকবাল।

তামিমের পর আউট হন সাকিব আল হাসান। সাব্বির ফিফটি করার পরই গেটক্যাটের স্লোয়ার বাতাসে ভাসিয়ে দিয়ে ক্যাচ আউট হন সাকিব। তার ক্যাচ নেন ক্রেইগ ইয়াং। ২৭ বলে ৪৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

সাকিবের পর মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ২৭ বল খেলে করেন ৩১ রান। ম্যাকব্রাইনের বলে ক্রেইগ ইয়াংয়ের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনিও। শেষ দিকে মাঠে নেমে ছোট্ট একটা ঝড় তোলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও। ৩১ বলে ৪৯ রান করে গেটক্যাটের বলে টেরির হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। মাশরাফি ৭ বলে ৮ রানে অপরাজিত থেকে যান।

আইরিশদের পক্ষে গেটক্যাট ৭ ওভার বল করে ৬০ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। ১০ ওভারে ৬৯ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন ম্যাকব্রাইন। ১ উইকেট নেন ক্রেইগ ইয়াং।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এইচআর