ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 5 months ago

বন্যার পানিতে ভেসে যাওয়ায় বিপাকে দুর্গাপুরের মৎস্য চাষীরা



নেত্রকোনা প্রতিনিধি:

নেত্রকোনার জেলার দুর্গাপুর উপজেলায় বিগত বন্যায় মাছের খামার তলিয়ে প্রায় ৫০ লাখ টাকার মাছ ভেসে গেছে। ফলে দিশেহারা হয়ে পড়েছে মৎস খামারিরা। সরকারি সহযোগিতা ও সুদমুক্ত ঋণ পেলে আবারো মাছ চাষের স্বপ্ন দেখবেন বলে জানিয়েছেন খামারিরা।

উপজেলা মৎস্য উৎপাদন খামার সূত্রে জানা গেছে, চলতি বন্যায় পুকুর তলিয়ে যাওয়ায় রুই, কাতল, মৃগেল, তেলাপিয়া, বাটা, বৃগেট, সিলভার কার্প ও পোনাসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ভেসে গেছে। এতে মাছ চাষীদের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

উপজেলায় মৎস্য চাষীর সংখ্যা ২হাজার। পুকুরের সংখ্যা ২৪৪৫টি। এর মধ্যে ৫৫৩টি পুকুর তলিয়ে মাছ ভেসে গেছে।

মৎস্য চাষী ইন্দ্র মোহন দাস জানান, টানা কয়েক দফা বৃষ্টি, বন্যার পানি বৃদ্ধির সঙ্গে চলতি বছর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের হাওর-জলাশয়ের প্রায় ৫০ লাখ টাকার মাছ বাঁধ ভেঙে পানিতে তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গাঁওকান্দিয়া ও চন্ডিগড় ইউনিয়নের মৎস্য চাষীরা। মাছ চাষীরা বাঁধের পাশে জাল ও বানার বেড়া দিয়ে মাছ আটকানোর চেষ্টা করলেও পানি বাড়তে থাকায় তা আটকানো সম্ভব হচ্ছিল না। পানিতে তলিয়ে গেছে কয়েক লাখ টাকার স্বপ্নের মাছ। এ অবস্থায় ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্যচাষীরা সরকারি সহযোগিতা কিংবা সুদমুক্ত ঋণের দাবি জানান।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ দৌলত উল্লাহ মোরাদ বলেন, বন্যার পানিতে অনেক পুকুরসহ মাছের খামার ভেসে গেছে। বিষয়টি তদন্তসাপেক্ষে ক্ষতিগ্রস্ত চাষীদের নামের তালিকা করে একটি প্রতিবেদনের মাধ্যমে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট পাঠানো হচ্ছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত চাষীদের সুদমুক্ত ঋণ দিলে ক্ষতিপূরণ পুষিয়ে নিবে বলে জানান বন্যা ক্ষতিগ্রস্ত চাষীরা।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএকে