ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 2 months ago

চাঁদপুরে নেশামিশ্রিত খাবার খেয়ে একই পরিবারের ৫ জন অচেতন



চাঁদপুর প্রতিনিধি

চাঁদপুর শহরতলীর বাবুরহাট মডেল টাউন এলাকায় নেশমিশ্রিত খাবার খেয়ে  শিশু ও নারীসহ একই পরিবারের ৫ জন অচেতন হয়ে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

তারা হলেন- হাজীগঞ্জ উপজেলার রাজারগাঁও গ্রামের ইদ্রিস পাটওয়ারীর স্ত্রী তপুরুন্নেছা (৬০), তার ছেলে ও চাঁদপুর বাখরাবাদ গ্যাস অফিসের অফিস সহকারী লোকমান হোসেন পাটওয়ারী (৪৭), লোমানের স্ত্রী আছমা আক্তার (৩৪), মেয়ে সামিয়া আক্তার (১২) ও  আড়াই বছর বয়সী শিশুপুত্র সানিউল হক।

এদের মধ্যে অনেকে মোটামুটি সুস্থ হলেও লোকমান হোসেনের অবস্থা অনেকটা গুরুতর বলে জানা গেছে। তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় সোমবার সকালে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য স্থানীয় প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অসুস্থ আছমা আক্তার জানায়, রোববার সন্ধ্যায় বাজার থেকে গরুর মাংস এনে রাতের খাবারের জন্য রান্না করেন। রাত ১০টার দিকে তারা সবাই রাতের খাবার খেলে তার কিছুক্ষণ পর তারা অচেতন হয়ে একেকজন একেক জায়গায় পড়ে থাকে। এতে ধারণা করা হচ্ছে কেউ হয়তো চুরির উদ্দেশে খাবারের সাথে নেশাজাতীয় কিছু মিশিয়ে দিয়েছে।

তিনি জানান, তার বড় ছেলে সামিউল (১৮) প্রতিদিন নিয়মিত দেরি করে রাতের খাবার খাওয়ার অভ্যাস থাকায় সে ওই খাবার না খাওয়াতে ঘরে এসে দেখেন সবাই অচেতন হয়ে পড়ে আছে। পরে সামিউল তার মামাকে খবর দিলে অন্যান্য স্বজনরা মিলে তাদেরকে উদ্ধার করে রাতে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে এনে ভর্তি করান। বর্তমানে তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএকে