ব্রেকিং নিউজঃ

মর্যাদার লড়াইয়ে আবাহনীর জয়  ***  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আওয়ামী লীগ নেত্রীকে কুপিয়ে হত্যা  ***  রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের জন্য ছাদহীন খোলা কারাগার, দশকের পর দশক ধরে প্রাতিষ্ঠানিক বর্ণবাদের শিকার এই বাসিন্দারা-অ্যামনেস্টি  ***  জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসাবে শুক্রবার শপথ নিতে যাচ্ছেন দেশটির সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নাঙ্গাগওয়া  ***  চট্রগ্রাম বিমানবন্দরে সাড়ে তিন কেজি স্বর্ণসহ এক যাত্রী আটক  ***  সরকার দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে- মির্জা ফখরুল  ***  মানবতাবিরোধী অপরাধে বসনিয়ার ‘সাক্ষাৎ শয়তান’ রাতকো ম্লাদিচের যাবজ্জীবন  ***  দ. কোরিয়ায় পালাতে গিয়ে সহকর্মীদের গুলিতে নিহত উ. কোরীয় সৈনিক  ***  জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ন্যানগাওয়ের শপথ শুক্রবার, আজ রাতে পালাতে পারেন মুগাবে  ***  কুড়িগ্রামে মৌমাছির কামড়ে ৩৭ জন শিক্ষার্থীসহ আহত অর্ধশতাধিক
Published: 5 months ago

খুলনায় মুক্তিযোদ্ধা হত্যায় চার কারণ তদন্তে মাঠে পুলিশ : আটক ১



খুলনা প্রতিনিধি:

খুলনায় মুক্তিযোদ্ধা আওয়ামী লীগ নেতা শাহাদাত হোসেন মোল্লা হত্যার চারটি কারণ চিহ্নিত করে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। তবে প্রাথমিকভাবে এলাকার আধিপত্য বিস্তার ও ঘের সংক্রান্ত বিরোধকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে শাহাদাত হোসেনের ভাইঝি জামাই আজমকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পুলিশ আটক করেছে।

 

বুধবার রাত ৮টার দিকে নগরীর হরিণটানা থানার রায়েরমহল হামিদনগর স্লইজ গেট এলাকার হাজী মহসীন স্কুলের কাছে হত্যাকাণ্ডের এই ঘটনা ঘটে।

 

মুক্তিযোদ্ধা হত্যাকান্ড ও ৫ ব্যক্তি আহত হওয়ার ঘটনায় এখনও মামলা হয়নি। আহত ৫জনের মধ্যে মোস্তফা খানকে (৪৫) উন্নত চিকিৎসার জন্য বুধবার রাতেই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

পুলিশ হত্যাকাণ্ডের সাথে যুক্ত থাকার সন্দেহে আজম নামে গুলিবিদ্ধ এক ব্যক্তিকে আটক করেছে। আজম খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রিজন সেলে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আজম মুক্তিযোদ্ধা শাহাদাত হোসেনের ভাইঝি জামাই। মুক্তিযোদ্ধা শাহাদাত হোসেন মোল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সোনাডাঙ্গা থানা শাখার মুক্তিযোদ্ধাবিষয়ক সম্পাদক।

 

গুলিতে আহত বুলবুল শেখ (৩২) জানান, বুধবার রাত ৮টার দিকে মামা শাহাদাত হোসেন বেশ কয়েকজন লোকের সাথে বসে চা খাচিচ্ছলেন। এ সময়ে ৩/৪জন লোক অস্ত্র নিয়ে ব্রাশ ফায়ার করতে থাকে। তাদের এলোপাতাড়ি গুলিতে ঘটনাস্থলে লুটিয়ে পড়েন মামা শাহাদাত হোসেন। এ সময়ে এগিয়ে আসা লিয়াকত খান (৬০), তার ছেলে মোস্তফা খান, শাহাদাত হোসেনের ভাইপো রুবেল মোল্লা, শাহাদাত হোসেনের ভাইঝি জামাই আজম গুলিতে আহত হন।

 

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাজারী-২ ইউনিটের প্রধান প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস বলেন, ৫ জনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুলিবিদ্ধ হয়েছে। তাদের শরীরের গুলি এখনই অপসারণ করা সম্ভব নয়। তাতে রোগীর অবস্থা খারাপ হতে পারে।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাজারী-২ ইউনিটের সহকারী রেজিস্টার এসএম মনোয়ারুল ইসলাম মনির জানান, শাহাদাত হোসেন ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছিলেন। তাকে মৃত অবস্থায়ই হাসপাতালে আনা হয়।

 

হরিণটানা থানার ওসি সরদার মোশাররফ হোসেন বলেন, মুক্তিযোদ্ধা শাহাদাত হোসেন হত্যা ও ৫ ব্যক্তি আহত হওয়ার ঘটনায় এখনও মামলা হয়নি। তিনি জানান, শাহাদাত হত্যাকাণ্ডে যুক্ত থাকার অভিযোগে আজম নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। সে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পুলিশ হেফাজতে চিকিৎসা নিচ্ছে।

 

হত্যাকাণ্ডের শিকার মুক্তিযোদ্ধা শাহাদাত হোসেনের ভাই মোহাম্মদ আলী জানান, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লাশের ময়না তদন্ত শেষে গোবর চাকা মেইন রোডের পৈতৃক বাড়িতে আনা হবে। পরে গোবরচাকা জামে মসজিদে জানাযা শেষে বসুপাড়া কবর স্থানে দাফন করা হবে। তবে অপর এক সূত্রে জানা গেছে, শাহাদাত হেসেনের ২ ছেলে বিদেশ থেকে ফিরলেই দাফন করা হবে। শাহাদাত হোসেনের  ৪ ছেলে ও ২ মেয়ে। তার স্ত্রী রয়েছে তিনজন।

 

তবে পুলিশ হত্যাকান্ডকে নিয়ে চারটি কারণ অনুসন্ধানে মাঠে কাজ করছে। সেগুলো হচ্ছে এলাকার আধিপত্য বিস্তার, রায়েরমহল এলাকায় ঘের নিয়ে বিরোধ, চরমপন্থিদের সাথে দ্বন্দ্ব এমনকি পারিবারিক বিরোধ রয়েছে কিনা এমন বিষয় নিয়েও তদন্ত করছে।

 

এ বিষয়ে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের বিশেষ শাখার (সিটিএসবি) সিনিয়র সহকারী কমিশনার সুমন রঞ্জন সরকার বলেন, পুলিশ হত্যাকাণ্ডের চারটি কারণ চিহ্নিত করে তদন্ত করছে। ওই চার কারণের মধ্যে এলাকার আধিপত্য বিস্তার, রায়েরমহল এলাকায় ঘের নিয়ে বিরোধকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। তিনি বলেন, এ ঘটনার সাথে যুক্ত থাকার অভিযোগে আটক আজমের সাথে শাহাদাত হোসেন মোল্লার ঘের সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধ রয়েছে।

 

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএকে