ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 4 months ago

ঘিওর-ভররা সড়ক মেরামত না করায় মানুষের দুর্ভোগ চরমে



মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:

জেলার ঘিওর-ভররা সড়ক মেরামত না করায় এলাকার মানুষকে যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ঘিওর সদর ইউনিয়ন, ঠাকুরকান্দি গ্রাম ও দৌলতপুর উপজেলার খলসী ইউনিয়নর ভররা গ্রামের একমাত্র সংযোগ সড়কটির ভঙ্গুর ও নাজুক অবস্থার কারনে সীমাহীন দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে ১৫টি গ্রামের প্রায় ৫০ হাজার মানুষ।

 

সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয় লোকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডির) আওতায় ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে ঘিওর উপজেলা পরিষদ থেকে গরু হাট ব্রিজ পর্যন্ত রাস্তা পাকাকরণ করা হয়। সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হামিদুর রহমানের বাড়ি থেকে দুলালের বাড়ি পর্যন্ত এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আঃ খালেক বিএসসির বাড়ি থেকে চৌরাস্তা পর্যন্ত কাঁচা রাস্তা দীর্ঘদিনেও পাকা করা হয়নি।

 

গতবারের বন্যায় রাস্তা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অপরদিকে, ঠাকুরকান্দি ব্রিজ থেকে ভররা বাজার এবং বিনোদপুর বাজার পর্যন্ত রাস্তাটি এ যাবত পর্যন্ত  ইট সোলিং ও পাকা করা হয়নি। ফলে এই রাস্তা দিয়ে কুস্তা, রসুলপুর, ঠাকুরকান্দি, জামিরকান্দি, বিনোদপুর, নবগ্রাম, বনগ্রাম এবং দৌলতপুর উপজেলার ভররা, খলসী কুমুরিয়া চরখলসী, রাহাতহাটি প্রায় ১৫টি গ্রামের হাজার হাজার মানুষকে যাতায়াতের ক্ষেত্রে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

 

গত বন্যায় ঠাকুরকান্দি গ্রামের সড়কটিতে বিভিন্ন স্থানে খানাখন্দের সৃষ্টি হয়ে মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে। রাস্তাা দিয়ে চলাচলরত সি এন জি, অটোবাইক, রিকশা, ভ্যানসহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচলে অসুবিধা দেখা দিচ্ছে। এ সড়কটি দিয়ে প্রায় ৫-৬ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র/ ছাত্রীদের স্কুল ও কলেজে যেতে অনেক দূর্ভোগ পোহাতে হয়। অপর দিকে কৃষকদের পণ্যসামগ্রী আনা নেয়ার ক্ষেত্রে পরিবহন ভাড়া অধিকতর ব্যয় করতে হচ্ছে। বন্যা মৌসুমে এ অঞ্চলের লোকজনের দুর্ভোগের সীমা থাকে না। নৌকায় চলাচল করতে হয়।

 

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোঃ আতোয়ার রহমান জানান, উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগের একমাত্র রাস্তাটি দীর্ঘ দিনেও সংস্কার করা হয়নি। রাস্তাটি মেরামত হলে ১৫টি গ্রামের মানুষ দ্রুত যাতায়াত করতে পারবে।

 

ঘিওর সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ অহিদুল ইসলাম (টুটুল) জানান, সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সাথে আলাপ করে রাস্তাটি মেরামতের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

 

উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী মোঃ সাজ্জাকুর রহমান জানান, ঘিওর- ঠাকুরকান্দি, ভররা রাস্তাটি আমি পরিদর্শন করেছি। রাস্তাটি মেরামতের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে সকল প্রকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএকে