ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 3 months ago

‘ভিশন-২০৩০’ নিয়ে আসছে বিএনপি



বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) ‘ভিশন-২০৩০’-এর বিস্তারিত নিয়ে আসছে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার সকালে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে বিএনপির প্রয়াত মহাসচিব খন্দকার দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রীকে দেখতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি এরইমধ্যে সারাদেশে নেতাকর্মীদের সংগঠিত করতে কাজ শুরু করেছে। অবৈধ সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের অংশ হিসেবে বেগম জিয়া রূপকল্প ‘ভিশন-২০৩০’ ঘোষণা করবেন। এর আলোকেই আসছে নির্বাচনে দলের ইশতেহার তৈরি হবে।

চেয়ারপারসন ঘোষিত রূপকল্প ভিশন ২০৩০তে ক্ষমতায় গেলে জনগণের জন্য কি কি কাজ করা হবে তাও উল্লেখ থাকবে।

তিনি বলেন, আসছে নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে আর খালি মাঠে খেলতে দেয়া হবে না। আমরা সবসময় নির্বাচনমুখী দল। যেকোনো সময় ভোটের জন্য বিএনপি প্রস্তুত।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সম্প্রতি প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার বক্তব্যই প্রমাণ করে দেশে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন নেই। জনগণের কথা বলার কোনো অধিকার নেই। এখন শুধু বিরোধীদল নয় সাংবাদিকরাও সরকারের হয়রানি থেকে রেহায় পাচ্ছে না।

রূপরেখায় যা যা থাকছে-
রূপরেখায় প্রধানমন্ত্রীর নির্বাহী ক্ষমতায় ভারসাম্য আনা, রাষ্ট্রের এককেন্দ্রিক চরিত্র ঠিক রেখে বিদ্যমান সংসদীয় ব্যবস্থার সংস্কার ও সংসদ দ্বিকক্ষবিশিষ্ট করা, ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ, সুনীতি, সুশাসন ও সুসরকারের সমন্বয় ঘটানো, গণভোট ফিরিয়ে আনা, নির্বাচন কমিশন, দুর্নীতি দমন কমিশন, পাবলিক সার্ভিস কমিশন, মানবাধিকার কমিশনসহ সাংবিধানিক ও আধা সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রয়োজনীয় সংস্কার আনা, উচ্চ আদালতে বিচারক নিয়োগসংক্রান্ত আইন করা, ২০৩০ সালের মধ্যে দেশকে একটি উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করা, মাথাপিছু আয় পাঁচ হাজার মার্কিন ডলার এবং প্রবৃদ্ধি দুই অঙ্কে নেয়ার জন্য বিএনপির পরিকল্পনায় বিস্তারিত থাকবে।

এ ছাড়া শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি, যোগাযোগ, শিল্প, বাণিজ্য, কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ বিভিন্ন খাতওয়ারি পরিকল্পনাও থাকবে।

দলটির নেতারা বলছেন, জনগণ ও আন্তর্জাতিক বন্ধুদের বার্তা দেয়ার লক্ষ্যে এই রূপরেখা তৈরি করা হচ্ছে।

 

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএকে