ব্রেকিং নিউজঃ

সাগরে নিম্নচাপ: বন্দরে ৩ নম্বর সংকেত  ***  দুই শর্তে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় জামিন পেলেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া  ***  ক্যালিফোর্নিয়ায় হেপাটাইটিস-এ ভাইরাসে ১৯ জনের মৃত্যু  ***  পাকিস্তানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ২, আহত ৬  ***  'মিস ওয়ার্ল্ড' প্রতিযোগিতায় আজ চীন যাচ্ছেন জেসিয়া, কিন্তু কী নিয়ে যাচ্ছেন তিনি?  ***  মেসির শততম গোলে জয় পেল বার্সা  ***  অভিষেকেই ইমামের সেঞ্চুরি, দুই ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ জিতল পাকিস্তান  ***  যুক্তরাষ্ট্রে আবারো বন্দুকধারীর হামলা, নিহত ৩  ***  ১০৪ রানে হারল বাংলাদেশ, সিরিজ দক্ষিণ আফ্রিকার  ***  মিয়ানমারের রাখাইন বন্দরের ৭০ শতাংশ মালিকানা পাচ্ছে চীন
Published: 2 months ago

নারায়ণগঞ্জের সাত খুন মামলার রায় পিছিয়ে ২২ আগস্ট



নিজস্ব সংবাদদাতা:
নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুন মামলায় আসামিদের করা আপিল ও ডেথরেফারেন্সের রায় ঘোষণার দিন পিছিয়ে আগামী ২২ আগস্ট ঘোষণা ধার্য করেছেন হাইকোর্ট। রোববার বিচারপতি ভবানী প্রসাদসিংহ ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রায়ের নতুন এ দিন ধার্য করেন।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জাহিদ হোসেন কাজল জানান, প্রস্তুত না হওয়ায় রায় ঘোষণার দিন পিছিয়েছেন আদালত।

এর আগে গত ২৬ জুলাই সাত খুন মামলায় আসামিদের করা আপিল ও ডেথরেফারেন্সের শুনানি শেষে রায় ঘোষণার জন্য আজকের দিন ধার্য করা হয়।

আদালতে আসামিদের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মুনসুরুল হক চৌধুরী, এসএম শাহজাহান ও মো. আহসান উল্লাহ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জাহিদ সরোয়ার কাজল ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল বশির আহমেদ।

গত ১৯ জুলাই সাত খুন মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করেন। শুনানিতে অ্যাটর্নি জেনারেল নিম্ন আদালতের রায় বহাল রাখার আর্জি জানান।

গত ২২ মে সাত খুন মামলায় মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের শুনানি শুরু হয়। চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুন মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত নুর হোসেনসহ আসামিদের নিয়মিত ও জেল আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেন হাইকোর্ট।

গত ১৬ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জে আলোচিত সাত খুনের মামলায় সাবেক কাউন্সিলর নূর হোসেন, রর‌্যাবের প্রাক্তন কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল তারেক সাঈদ মোহাম্মদসহ ২৬ আসামিকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। বাকি নয় আসামির সবাইকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল দুপুর দেড়টার দিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড থেকে অপহৃত হন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, আইনজীবী চন্দন সরকারসহ সাতজন। তিন দিন পর ৩০ এপ্রিল শীতলক্ষ্যা নদীতে একে একে ভেসে ওঠে ছয়টি লাশ। পরদিন মেলে আরেকটি লাশ। নিহত অন্যরা হলেন নজরুলের বন্ধু মনিরুজ্জামান স্বপন, তাজুল ইসলাম, লিটন, গাড়িচালক জাহাঙ্গীর আলম ও চন্দন সরকারের গাড়িচালক মো. ইব্রাহীম।

ঘটনার এক দিন পর কাউন্সিলর নজরুলের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম বাদী হয়ে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতা (পরে বহিষ্কৃত) নূর হোসেনসহ ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেন।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএকে