ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 4 months ago

ঘনবসতিতে বিশ্বে প্রথম স্থান ঢাকা শহর!



বাংলা রিপোর্ট ডেস্ক:

জাতিসংঘের হ্যাবিটেট প্রতিবেদনে ঢাকাকে বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ শহর হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। ঢাকা শহরে প্রতি বর্গকিলোমিটারে বসবাস করেন ৪৪ হাজার ৫০০ মানুষ। এ জন্যই বসবাসে বিশ্বের সেরা ঢাকা শহর। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য গার্ডিয়ান।

এতে বলা হয়েছে, জাতীয় পরিসংখ্যান অফিস থেকে এসব তথ্য সংগ্রহ করেছে ইউএন হ্যাবিটেট এবং সংগৃহীত তথ্য একেবারে নির্ভেজাল। তাতে দেখা গেছে, ঘনবসতির দিক দিয়ে এক নম্বরে ঢাকা শহর। এ তালিকায় রয়েছে এশিয়ার আরো কিছু শহর। দ্বিতীয় অবস্থানে ভারতের মুম্বাই। চতুর্থ অবস্থানে ম্যানিলা ও সিঙ্গাপুর।

প্রশাসনিক শহরকে তার সন্নিহিত এলাকাগুলোর সঙ্গে তুলনা করে জনঘনত্বের এ হিসাব কষা হয়েছে। কিন্তু অন্য হিসাবে ফল কিন্তু ভিন্ন দেখা গেছে। জাতিসংঘেরই ডেমোগ্রাফিক ইয়ারবুকে শুধু ‘সিটি প্রোপারের’ জন্য ডাটা সন্নিবেশিত হয়েছে। এ হিসাবে বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতির শহর ম্যানিলা।

ইউরোপীয় দেশগুলোতে এর কাছাকাছি রয়েছে প্যারিস, এথেন্স ও বারসেলোনা। ইউরোপের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ শহর হলো বারসেলোনা। উত্তর আমেরিকায় সবচেয়ে ঘনবসতির শহর হলো নিউইয়র্ক। আর অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছে সিডনি। প্রতিবেদনে গার্ডিয়ান লিখেছে, স্বাভাবিকভাবেই শহরগুলো ঘনবসতির। বিভিন্ন গ্রুপের মানুষ তাদের হাতের নাগালে সব পাওয়ার আশায় শহরে ছুটে আসেন। এখানে তাদের সুরক্ষা রয়েছে।

আছে সুযোগ সুবিধা। একসঙ্গে সব প্রয়োজন মেটানো যায়। বিশ্ব জনসংখ্যার তাই শতকরা ৫০ ভাগের বেশি এখন নগরবাসী। জনঘনত্ব সাধারণত নির্ধারণ করা হয় কোনো নির্দিষ্ট ভূখণ্ডে বসবাসকারী মানুষের সংখ্যাকে এর আয়তন দিয়ে ভাগ করে। এরই ভিত্তিতে বর্তমানে পৃথিবীপৃষ্ঠে ৭০০ কোটি মানুষকে ভূ-আয়তন দিয়ে ভাগ করে দেখা যায়, প্রতি বর্গকিলোমিটার এলাকায় মোটামুটি ৫০ জন মানুষ বসবাস করছেন।

বিশ্বের পাহাড়ি, মরুময় অথবা অন্য যেকোনো ভূখন্ডে যদি তাকাই তাহলে একজন থেকে তার প্রতিবেশীর দূরত্ব প্রায় ১৫০ মিটার। এক্ষেত্রে বিশ্বে একটি শহরের সীমানা নির্ধারণে কোনো আন্তর্জাতিক গ্রহণযোগ্য সংজ্ঞা নেই। তাই শহরে বসবাসকারী মানুষের ঘনত্ব বের করা হয়েছে শহরের উপকূলের তুলনায়, প্রশাসনিক শহরের তুলনা করে।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এইচআর