ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 1 month ago

পানির নীচে ঘনিষ্ঠ হবার কালে ধেয়ে এলো অক্টোপাস, হাঙ্গর !



বাংলা রিপোর্ট ডেস্ক:

আপনার প্রিয় সঙ্গিনীির সাথে একান্ত শান্ত স্নিগ্ধ মূহুর্তে রয়েছেন। সারা ঘর ভরে আছে নীল রঙ্গের আলোয় ভরে রয়েছে।

 

শীতাতপ কক্ষের নিরালায় কোন শব্দ হচ্ছে না ঠিক এমন সময়েই আপনাদের শরীরের উপরে পড়ল হাতুড়িমাথা হাঙরের ছায়া। অথবা রাতে ঘুম ভেঙে দেখতে পেলেন, তার দীর্ঘ টেন্টাকলস বিস্তার করে আপনার দিকে তাকিয়ে রয়েছে অক্টোপাস। কেমন হবে সেই অভিজ্ঞতা?

 

ডুবোজাহাজে চড়ে ২০,০০০ লিগ পাড়ি দেওয়ার কল্পবিজ্ঞান নয়, একেবারেই আসল সত্য হতে চলেছে এই অভিজ্ঞতা। পৃথিবীর প্রথম আন্ডারওয়াটার রিসোর্টে এমন অভিজ্ঞতা যে হতে পারে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।

            ‘ফ্লোটিং সিহর্স’-এর প্রস্তাবিত রূপ

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম-সূত্রে জানা যাচ্ছে, দুবাইতে শিঘ্রই তৈরি হতে চলেছে এই রিসোর্ট। ‘ফ্লোটিং ভেনিস’ নামের এই বিলাসবহুল রিসর্টটি নিঃসন্দেহে একটি বিস্ময়ে পরিণত হতে চলেছে এমনটাই মত রসিকজনের।

 

তটভূমি থেকে ৪ কিমি দূরে ইতালীয় শহর ভেনিসের অনুকরণে তৈরি হবে এক ভাসমান শহর। সেখানে ভেনিসের আঙ্গিকে গন্ডোলা ভ্রমণেরও ব্যবস্থা থাকবে। স্পীড বোটে চড়েই পৌঁছতে হবে মাঝ দরিয়ায় ভাসমান কেবিনগুলিতে। কেবিনগুলির উপরে ঘর থাকছে।

             

                       ‘ফ্লোটিং সিহর্স’-এর শয়নকক্ষ

কিন্তু আসল আকর্ষণ থাকছে নীচের কক্ষে। সেটিই পানির তলায় এবং তার কাচের দেওয়াল ভেদ করে আসবে সমুদ্রগর্ভের নীল আলো। সেখান থেকেই দেখা যাবে পানির নিচের জীবনকে।

 

রিসোর্টবাস রঙিন হয়ে উঠবে রং-বেরংয়ের প্রবালের সান্নিধ্য ও মাছের ঝাঁকের হিলিবিলি চলাফেরায়। আর একটি সাগরগর্ভ রিসোর্ট ‘ফ্লোটিং সিহর্স’-ও একই বিলাস প্রদান করবে তবে তাতে ভেনিসের ভান থাকবে না।

 

অনুমান ২০২০ সালেই চালু হয়ে যাবে ‘ফ্লোটিং সিহর্স’ নামের রিসোর্টটি। আর তার পরেই হয়তো ‘ফ্লোটিং ভেনিস’। কেমন খরচ পড়বে এখানে থাকার তা নিয়ে কিন্তু মুখ খোলেনি কোনও মিডিয়াই।

 

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএম