ব্রেকিং নিউজঃ

ভেজাল সিরাপ খেয়ে ২৮ শিশুর মৃত্যু, ২ কর্মকর্তা বরখাস্ত  ***  আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর ঘোষণা করলেন ইংলিশ স্ট্রাইকার ওয়ারেন রুনির  ***  নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে ১ জন নিহত  ***  মিয়ানমারে সেনা মোতায়েনের পর সাড়ে ৩ হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে আশ্রয় নিয়েছে বাংলাদেশে  ***  'বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা'র দায়ে ১৩ শিক্ষক কারাগারে  ***  আজ বিকাল ৩.৩০ মিনিটে অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ ফুটবলের সেমিফাইনালে নেপালের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ  ***  দক্ষিণ আফ্রিকা দলের অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ডি ভিলিয়ার্স, খেলবেন তিন ফর্মেটেই  ***  মৎস্যজীবীদের জিম্মি করে কাউকে দস্যুতা করতে দেয়া হবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  ***  ব্রাজিলে নৌকা ডুবিতে কমপক্ষে ১০ জনের মৃত্যু, অনেকে নিখোঁজ  ***  মিয়ানমার থেকেও আসছে কোরবানির পশু
Published: 2 months ago

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই জাবি শিক্ষার্থীর পরিবারকে আর্থিক অনুদান ও চাকুরি প্রদান



সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দু’শিক্ষার্থীর পরিবারকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে আজ পাঁচ লাখ টাকা এবং দু’পরিবারের দু’সদস্যকে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকুরি দেয়া হয়েছে। খবর বাসস।

গত ২৬ মে সড়ক দুর্ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের আলবেরুনী হলের আবাসিক ছাত্র নাজমুল হোসেন রানা ও মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের একই হলের আবাসিক ছাত্র মেহেদী হাসান আরাফাত নিহত হন।
বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিঞ্জপ্তিতে জানানো হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ৫ লাখ করে দুই পরিবারকে মোট ১০ লাখ টাকা এবং নাজমুল হোসেন রানার বোন কামরুন নাহার কনা ও মেহেদী হাসান আরাফাতের বোন সোনিয়া আক্তারকে বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি দেয়া হয়েছে।
এতে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট হলে দুপুরে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম উভয় পরিবারের কাছে টাকা ও চাকরির নিয়োগপত্র হস্তান্তর করেন।
নাজমুল হোসেন রানার পিতা আবদুল কুদ্দুস এবং মেহেদী হাসান আরাফাতের পিতা জসীম উদ্দিন সরকার টাকা ও চাকরির নিয়োগপত্র গ্রহণ করেন।
নাজমুল হোসেন রানার বোন কামরুন নাহার কনাকে প্রীতিলতা হলে পিয়ন এবং মেহেদী হাসান আরাফাতের বোন সোনিয়া আক্তারকে নওয়াব ফয়জুন্নেসা হলে নিম্নমান সহকারি পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আবুল খায়ের, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আমির হোসেন, রেজিস্ট্রার আবু বকর সিদ্দিক, প্রক্টর অধ্যাপক ড. তপন কুমার সাহা, ঢাকা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আজিম এবং নিহত দুই শিক্ষার্থীর সহপাঠিগণ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এএইচ