ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 4 months ago

ঘুরে আসুন ঢাকার ঐতিহ্য রোজ গার্ডেন থেকে



রোজ গার্ডেনটি বর্তমানে “হুমায়ুন সাহেবের বাড়ি” নামেই পরিচিত ।

 

বাগানে প্রচুর গোলাপ গাছ থাকায় এর নাম হয় রোজ গার্ডেন। ১৯৩১ সালে ঋষিকেশ দাস নামে এক ধনাঢ্য ব্যবসায়ী পুরান ঢাকার ঋষিকেশ রোডে ২২ বিঘা জমির উপর একটি বাগানবাড়ি তৈরি করেন। এছাড়া বাগানটি সুদৃশ্য ফোয়ারা, পাথরের মূর্তি ইত্যাদি দ্বারা সজ্জিত ছিল। মূল ভবনের দ্বিতীয় তলায় পাঁচটি কামরা আর একটি বড় নাচঘর আছে। নিচতলায় আছে আটটি কামরা।

 

এছাড়া বাগানে মার্বেল পাথরের মূর্তি, কৃত্রিম ফোয়ারা ইত্যাদিও ছিল, রোজ গার্ডেন হয়ে উঠেছিল তখন ঢাকার অন্যতম দর্শনীয় স্থান। বাগানে এখনও বেশ কয়েকটি শ্বেত  পাথরের মূর্তি আছে। বেশিরভাগ মূর্তিই বাড়ির ভেতরে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

 

আগে মূল বাড়ির সামনে সুদৃশ্য একটা বড় ঝর্ণা ছিল, যার ভগ্নাংশটি এখনও রয়ে গেছে। এখন বাড়ির ঠিক সামনেই একটা পুকুর আছে। ওপর পাশে বেশ কিছু তাল গাছের সারি।

 

আয়তন ও নির্মাণশৈলী:
ভবনটির মোট আয়তন সাত হাজার বর্গফুট। উচ্চতায় পঁয়তাল্লিশ ফুট। ছয়টি সুদৃঢ় থামের উপর এই প্রাসাদটি স্থাপিত। প্রতিটি থামে লতাপাতার কারুকাজ করা। প্রাসাদটির স্থাপত্যে করিন্থীয়-গ্রীক শৈলী অনুসরণ করা হয়েছে।

 

ইতিহাস:
ভবনটি নির্মানের কিছুকাল পরেই হৃষিকেশ দাস দেউলিয়া হয়ে পরলে তিনি এই প্রাসাদ বিক্রি করে দেন বই ব্যবসায়ী আবদুর রশিদের কাছে। তিনি এখানে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন প্রভিন্সিয়াল লাইব্রেরি। সত্তর সালের দিকে ‘রোজ গার্ডেন’ লিজ দেয়া হয় ‘বেঙ্গল স্টুডিও’কে।

 

এরপর প্রথম হাত বদল হয় ১৯৩৭ সালে। ১৯৬৬ সালে আবদুর রশীদের বড় ভাই কাজী হুমায়ুন বশীর এই রোজ গার্ডেনের মালিকানা লাভ করেন। এ সময় তাঁর নামেই রোজ গার্ডেন হুমায়ুন সাহেবের বাড়ি হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। কাজী হুমায়ুন ১৯৭০ সালে তৎকালীন স্বনামধন্য চলচিত্র উন্নয়ন সংস্থা বেঙ্গল স্টুডিও ও মোশন পিকচার্স লি: এর কাছে বাড়িটি ভাড়া দেন। ১৯৮৯ সালে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ ‘রোজ গার্ডেন’কে সংরক্ষিত ভবন বলে ঘোষণা করে।

 

শেষে ১৯৯৩ সালে বাড়িটির অধিকার ফিরে পান কাজী রকিব, হুমায়ুন সাহেবের পারিবারিক বংশধর। বাড়িটির বর্তমান মালিক তিনি ও তাঁর স্ত্রী লায়লা রাকিব।

 

এই রোজ গার্ডেন বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনারও সাক্ষি হয়ে আছে, ১৯৪৯ সালে এখানেই গঠিত হয়েছিল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ!

 

ব্যবস্থাপনা:
১৯৯৩ সালে কাজী হুমায়ুন বসিরের বংশধর কাজী রবিক বাড়িটির মালিকানা ফেরত পান। ১৯৮৯ সালে প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতর এই প্রাসাদটি সংরক্ষণ তালিকাভুক্ত করে।

 

স্থান:
ঢাকার মতিঝিলের নিকটে  টিকাটুলির কেএম দাস রোডে অবস্থিত রোজ গার্ডেন সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়া অন্য সব দিন দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত থাকে।

 

বাংলা রিপোর্ট/এম/এম.