ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 5 months ago

চিকোনগুনিয়া জ্বর থেকে সাবধান!



বর্তমানে অনেকেরই চিকোনগুনিয়া জ্বরটা হচ্ছে। এটি এক ধরনের ভাইরাস জ্বর। ডেঙ্গুর মতোই এর লক্ষণ। মশার কামড় থেকেই সাধারণত এই জ্বর হয়ে থাকে।

চিকোনগুনিয়ায় আক্রান্ত হলে হাড়ে ও গিটে গিটে প্রচণ্ড ব্যথা থাকে। শরীর হয়ে পড়ে প্রচণ্ড দুর্বল। এতে আক্রান্ত হলে মাথাব্যথা থাকবে।

এক কথায় ডেঙ্গু এবং চিকোনগুনিয়ার লক্ষণ একই রকম। শুধু পার্থক্য হলো ডেঙ্গুতে রক্তের কার্যক্ষমতা কমে যায় এবং রোগীর ঝুঁকি অনেকটা বাড়ে। সেক্ষেত্রে চিকোনগুনিয়ার ঝুঁকি অনেকটাই কম।
জ্বর তিনদিনে সেরে গেলেও, ৭ থেকে ১০ দিন পর্যন্ত শরীর দুর্বল ও গিটে গিটে ব্যথা থাকে। এই চিকোনগুনিয়া জ্বরের এখনো কোনো ডায়াগনস্টিক পরীক্ষা শুরু হয়নি। প্রাথমিকভাবে ডেঙ্গুর পরীক্ষা দেয়া হয়। যদি ডেঙ্গু জ্বর না ধরা পড়ে তাহলে লক্ষণ অনুসারে ধরে নেয়া হয় চিকোনগুনিয়া হয়েছে।
এই ধরনের রোগীদেরকে সাধারণত নাপা অথবা প্যারাসিটামল দিলেই হয়। অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার কোনো দরকার নেই। প্রচুর পানি খেতে হবে। সাথে ডাবের পানি খেতে পারেন। লেবুর শরবত খেতে হবে। সাথে ওরস্যালাইনও খাওয়া যেতে পারে এবং বিশ্রামে থাকতে হবে।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/এমএকে