ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 1 month ago

বয়স ৮০০, তবুও সে বালক, রহস্য জানলে হাসি পাবে!



বাংলা রিপোর্ট ডেস্ক

 

শতাব্দীর পর শতাব্দী তার কোনো খোঁজ ছিল না। এতদিন পর তার খোঁজ মিলেছে। তার বয়স এখন প্রায় ৮০০ বছর। তবুও সে বালক। রুশ বিজ্ঞানীরা তার ডিএনএ মিলিয়ে খুঁজে বের করেছেন তার আত্মীয়দেরও। আসলে যার বয়স ৮০০ বছর, তাকে বালক বলা নিয়ে তৈরি হয়েছে বিভ্রান্তি। তা হলে জানা যাক আসল রহস্য কি?

 

 

যে বালকের কথা বলা হচ্ছে, তার বয়স বৃদ্ধি আজ থেকে ৮০০ বছর আগেই থেমে গেছে। কারণ বালক বয়সেই তার মৃত্যু হয়েছিল। অবশ্য শিরোনাম দেখে একটু চমকে উঠার কথা। কিন্তু হাসি না দিয়ে পারবেন না।

 

 

তার মৃতদেহ মমি করে সংরক্ষণ করা হয়। সম্প্রতি রাশিয়ার সালেখার্দ শহরে মমিটির সন্ধান মিলেছে। কার্বন ডেটিং করিয়ে জানা গেছে মমিটির বয়স ৮০০ বছর। সেই বালকের মমি, যা ঘুম উড়িয়েছে নৃতত্ত্ববিদদের।

 

 

রাশিয়ায় মমি করে মৃতদেহ সংরক্ষণের রেওয়াজ খুব বেশি ছিল বলে জানা যায় না। কিন্তু ৮০০ বছর আগে এই বালকের মৃতদেহকে মমি করে রাখা হয়েছিল। এ তথ্য প্রত্নতত্ত্ববিদদের যেমন চমকে দিয়েছে, তেমনই চমকে দিয়েছে নৃতত্ত্ববিদদেরও।

 

 

মমিটি নিয়ে একাধিক গবেষণা শুরু করেছেন রুশ বিজ্ঞানীরা। রাশিয়ার কোন জনগোষ্ঠীর মধ্যে মমি করার রেওয়াজ ছিল, পরীক্ষা করে জানার চেষ্টা হয়েছে তাও।

 

 

মমিটি থেকে ডিএনএ’র নমুনা সংগ্রহ করে বিজ্ঞানীরা পরীক্ষা নিরীক্ষা চালিয়েছেন। পরীক্ষায় প্রমাণ পাওয়া গেছে, আধুনিক রাশিয়ায় সাইবেরিয়ান বলে যারা পরিচিত, তাদের ডিএনএ’র সঙ্গে ওই ৮০০ বছরের বালকের ডিএনএ’র মিল রয়েছে। আধুনিক সাইবেরিয়ান জনগোষ্ঠীর পূর্বপুরুষ ওই বালক। মাঝে কেবল কেটে গেছে কয়েকটা শতক।

 

বাংলা রিপোর্ট/এফএম