ব্রেকিং নিউজঃ

Published: 2 months ago

জাফরানের ইতিহাস



জাফরান হল একধরনের মশলা যা জাফরান ফুলের শুষ্ক গর্ভমুন্ড থেকে পাওয়া যায়। আনুমানিক ৩৫০০ বছর ধরে মানুষ জাফরান চাষ ও ব্যবহার করে আসছে, যা ঔষধ, রং, সুগন্ধি ও মশলা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। জাফরান ক্রোকাস একরকমের নির্বীজ ট্রাইপ্লোয়ড। বিশেষ ধরনের নীতিভ্রষ্ট মিয়োসিস দ্বারা এর বংশবৃদ্ধি ঘটে।

ইংরেজীতে ‘স্যাফরন’শব্দটির ব্যুৎপত্তি খানিকটা জাফরান ফুলের মতোই – সহজে নির্ধারণ করা যায় না। লাতিন শব্দ স্যাফরানাম ও দ্বাদশ শতাবদীর ফরাসী শব্দ সাফরান-এর থেকে শব্দটি এসে থাকতে পারে। ফরাসী শব্দটি এসেছে আরবি زَعْفَرَان (‍‍জাফারান) ও আক্কাদীয় আজুপিরানু থেকে। লাতিন ক্কাস শব্দটির উৎপত্তি সেমিটিক ভাষা থেকে। আরমীয় কুরকেমা, আরবি কুরকুম ও গ্রীক ক্রোকোস – এই সব শব্দগুলিই “হলুদ রং” বা “হলদে” বোঝায়। সংস্কৃত কুমকুমম্-এর সঙ্গে হয়তো কোনওক্রমে সেমিটিক শব্দটির সম্পর্ক স্থাপন করা যেতে পারে।

জাফরানের প্রথম চিত্রটি পাওয়া যায় প্রাক্-গ্রীক সংস্কৃতির ব্রোঞ্জ যুগের। ক্রীটের নোসোস প্রাসাদে পাওয়া জাফরান চাষের চিত্রে দেখা যায় মেয়েরা ও বাঁদররা জাফরান তুলছে। এজিয়ান দ্বীপ সান্টোরিনির আক্রোতিরি খননের সময়ে “জেস্ট-৩” ভবনে পাওয়া যায় ফ্রেস্কোচিত্রের নিদর্শন – গ্রীকরা একে “থেরে” বলত। এই চিত্রগুলি সম্ভবত খ্রীষ্টপূর্ব ষোড়শ বা সপ্তাদশ শতাব্দীর। চিত্রগুলিতে এক মিনোয়ান দেবীকে দেখা যায় যিনি ঔষধ তৈরী করার জন্য জাফরান ফুল তুলছেন ও গর্ভমুন্ড পরিষ্কার করছেন। এইস্থানের আরেকটি ফ্রেস্কোচিত্রে জাফরান দিয়ে নিজের রক্তাক্ত পায়ের শুশ্রূষা করতে দেখা যায় এক নারীকে। এই ফ্রেস্কোগুলিই প্রথম যেখানে জাফরানের ওষধিগুণের উদ্ভিদ্বিদ্যাসম্মত যথার্থ দৃশ্য চিত্রায়িত হয়েছে। তবে জাফরান চাষীদের এই মিনোয়ান উপনিবেশটি খ্রীষ্টপূর্ব ১৬৪৫-১৫০০-এর মধ্যে ভয়ঙ্কর ভূমিকম্প ও আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের কারনে ধ্বংস হয় যায়।

আদি গ্রীকদের উপকথায় শোনা যায় বহু দুঃসাহসী নাবিক সুদূর সিলিসিয়া অঞ্চলে পাড়ি দিয়েছিলেন বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান জাফরান আমদানি করার জন্য। হেলেনীয় রূপকথার ক্রোকাস ও স্মাইলাক্সের কাহিনী সবচেয়ে জনপ্রিয়। জলপরী স্মাইলাক্সকে ভালো লাগে সুদর্শন যুবক ক্রোকাসের। পরীকে সে যতই কাছে পেতে চায় না কেন, স্মাইলাক্স ধরা দেয় না। অ্যাথেন্সের নিকটবর্তী অরণ্যে তার প্রেমের সারল্যে অভিভূত হয় স্মাইলাক্স।

আদি গ্রীকদের উপকথায় শোনা যায় বহু দুঃসাহসী নাবিক সুদূর সিলিসিয়া অঞ্চলে পাড়ি দিয়েছিলেন বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান জাফরান আমদানি করার জন্য। হেলেনীয় রূপকথার ক্রোকাস ও স্মাইলাক্সের কাহিনী সবচেয়ে জনপ্রিয়। জলপরী স্মাইলাক্সকে ভালো লাগে সুদর্শন যুবক ক্রোকাসের। পরীকে সে যতই কাছে পেতে চায় না কেন, স্মাইলাক্স ধরা দেয় না। অ্যাথেন্সের নিকটবর্তী অরণ্যে তার প্রেমের সারল্যে অভিভূত হয় স্মাইলাক্স। তবে ক্রোকাসের ভালোবাসা ফিরিয়ে না দিতে সে ক্রোকাসকে একটি গেরুয়া রঙের ফুলে পরিণত করে দেয়। গেরুয়া রং হল অনন্ত ও অস্বীকৃত প্রেমের প্রতীক।

বাংলা রিপোর্ট ডটকম/

উইকপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ অবলম্বনে আজমল হোসেন

আজমল হোসেন